মঙ্গলবার, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সিগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানকে গুলি করে হত্যা, আটক ৩

প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
জুলাই ৭, ২০২৪ ৮:৩৭ অপরাহ্ণ

Loading

নিজস্ব প্রতিবেদক :
মুন্সিগঞ্জে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে বিরোধের জের ধরে টঙ্গীবাড়ি উপজেলার পাঁচগাও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এইচ এম সুমন হালাদারকে (৪৫) গুলি করে হত্যা করেছে প্রতিপক্ষ।
সোমবার দুপুর একটার দিকে ইউনিয়নের পাঁচগাও আলহাজ্ব ওয়াহিদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে।
আটককৃতরা হলেন কাউসার হালদার (৪৫), শেখ নুর হালদার (৪৮) ও নুর হোসেন হালদার (৪০)।
নিহত এইচ এম সুমন হালদার টঙ্গীবাড়ি উপজেলার পাঁচগাও ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান। সে ওই গ্রামের পিয়ার হোসেন হালদারের ছেলে। তার একটি পুত্র ও একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, সোমবার সকাল ১০ টা থেকে পাঁচগাও ওয়াহেদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি পদে নির্বাচন চলছিলো। এতে ৯ ভোট পেয়ে সভাপতি পদে দেওয়ান মনিরুজ্জামান ৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তবে ইউপি চেয়ারম্যান সুমন হালদার মনিরুজ্জামানের পক্ষে অবস্থান নেয়। এতে পরাজিত অপর প্রার্থী মোঃ মিলেনুর রহমান মিলনের সমর্থক নূর মোহাম্মদ ক্ষিপ্ত হয়ে দুপুর ১ টার দিকে বিদ্যালয়ের মাঠে নিহত ইউপি চেয়ারম্যান সুমনের সাথে ধস্তাধস্তি করে মাঠে ফেলে দিয়ে প্রকাশ্য বুকে গুলি করে দ্রুত বিদ্যালয় মাঠ থেকে চলে যায়।
পরে সুমনকে উদ্ধার করে দ্রুত টঙ্গীবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। ঢাকা নেওয়ার পথে দুপুর ২ টার দিকে তার মৃত্যু হয়।
নিহতের চাচা নুরুজ্জামান কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, এই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন আমার ভাতিজারে মাইরা ফেললো। যে গুলি করছে নুর মোহাম্মদ সে চেয়ারম্যান সুমনের আত্মীয়। তারাও সম্পর্কে চাচা ভাতিজা। আমরা এই হত্যার সঙ্গে জড়িত সকলকে গ্রেপ্তার করে কঠিন শাস্তি দাবি করছি।
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মুন্সিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান। তিনি জানান, বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে দ্বন্দের জের ধরে ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় তিন জনকে আটক করা হয়েছে। করেছে পুলিশ। তবে তাদের পরিচয় নিশ্চিত করেননি পুলিশ সুপার। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে মর্গে পাঠানোর হয়েছে ।
এদিকে এই ঘটনায় এখনো সন্ধ্যা ৭ থানায় মামলা হয়নি। তবে থানায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে

সর্বশেষ - মুন্সিগঞ্জ

আপনার জন্য নির্বাচিত